আ’লীগের এখন সুসময় হলেও সুবিধা পাচ্ছেনা ত্যাগী নেতারা ঃ শহিদুল ইসলাম সুমন

0

স্টাফ রিপোর্টারঃনারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের ২২নং ওয়ার্ড আ’লীগের সাধারন সম্পাদক পদপ্রত্যাশী বন্দর পৌর ইউনিয়ণ যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক শহিদুল ইসলাম সুমন মহানগর আ’লীগের শীর্ষ নেতাদের প্রতি উদাত্ত আহŸান জানিয়েছেন। তিনি তার একটি বিবৃতিতে জানিয়েছেন,বর্তমানে ফরমালিন আ’লীগের ভীরে ত্যাগী আ’লীগাররা তেমন মূল্যায়িত হচ্ছেনা। নতুনদের দাপটে প্রকৃত পোড় খাওয়া আ’লীগাররা এখন রাজনীতিতে টিকবে কিনা সে নিয়ে রয়েছে নানা শংকা। শীর্ষনেতারা বেমালুম ভুলে গেছে বিগত সময়ে বিএনপি-জামাতের অসহনীয় নির্যাতনের কথা। বিএনপিরাপুটে অনেকেই বাড়িঘর ছাড়া হয়েছিল। অনেককে মামলা দিয়ে হয়রানী করা হয়েছিল। গ্রেফতারের ভয়ে অনেক আ’লীগাররা রাতে স্ত্রী,সন্তান ছেড়ে অন্যত্র রাত্রি যাপন করেছিল। অনেক আ’লীগ কর্মীকে বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে মারধর করেছিল বিএনপির ক্যাডাররা। সমস্ত বালু ব্যবসা,ড্রেজার ব্যবসা,নদী খল ছিল বিএনপির দখলে। বিভিন্ন স্ট্যান্ডে আধিপত্য বিস্তার করে ব্যাপক চাদাবাজীর মহোৎসব ছিল তাদের খলে। বিএনপির মনগড়া উদ্দেশ্য প্রনোদিত অভিযানের অংশ হিসেবে প্রশাসনের পেটুয়া বাহিনী ঘর থেকে ডেকে নিয়ে ছাত্রলীগ,যুবলীগের প্রতিবাদী নেতাদের ধরে নিয়ে অসহনীয় নির্মম নির্যাতন করেছিল। জাতীয়তাবাদী দলের চরম ভরাডুবি হয়ে যখন মুক্তিযুদ্ধের স্বপক্ষের শক্তি বাংলাশে আ’লীগের বিজয় হল তখল বিএনপির অনেকেই দেশত্যাগসহ বিভিন্ন পেশায় আতœনিয়োগ হয়ে ছদ্দবরনে ছিল। অনেকে আ’লীগের সাথে আঁতাত করে অনুপ্রবেশকারী হিসেবে আ’লীগের ভিতরে ঢুকে ঘাপটি মেরে বসে আছে। এখন আ’লীগের সুসময় হলেও সেই ত্যাগী আ’লীগাররা ক্ষমতায় থাকলেও তেমন সুবিধা পাচ্ছেনা। এর জন্য আ’লীগের ভিতরেই শুদ্ধি অভিযান প্রত্যাশা করছে ত্যাগী আ’লীগের নেতাকর্মীরা। মহানগর আ’লীগের ৯টি ওয়ার্ডে কমিটি করার পূর্বে আ’লীগের প্রকৃত ত্যাগী নেতাকর্মী যাচাই সাপেক্ষে শীর্ষ নেতারে পদ-পদবী দেয়ার আহŸান জানাচ্ছি।