নানান আয়োজনে গতকাল যুক্তরাষ্ট্র যুবলীগের উদ্যোগে পালিত হয়েছে ইতিহাসের বেদনাবিধুর স্মৃতিবিজড়িত  ১৫ আগস্ট” জাতীয় শোক দিবস” দিনটি উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে জাতির পিতার আজীবন লালিত স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়ার প্রত্যয় ব্যক্ত করা হয়েছে। একই সঙ্গে বঙ্গবন্ধু ও তাঁর পরিবারের সদস্যসহ ১৫ আগস্টের  সকল হত্যার নেপথ‍্য হোতাদের  বিচারের আওতায় আনার দাবি জানিয়েছেন যুক্তরাষ্ট্র যুবলীগ নেতৃবৃন্দ।

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৬ তম শাহাদাত বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে – গতকাল রবিবার জাতির পিতার প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে নানা কর্মসূচী গ্রহণ করে বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ যুক্তরাষ্ট্র শাখা।  শোকাবহ ভাবগাম্ভীর্যের  মধ্যে তারা শ্রদ্ধা জানিয়েছেন বঙ্গবন্ধুর স্মৃতির প্রতি। যুক্তরাষ্ট্র যুবলীগের আহ্বায়ক এ কে এম তারিকুল হায়দার চৌধুরীর নেতৃত্বে শোক র‍্যালীসহ নানা আয়োজনে স্মরণ করা হয়  শোকের  এই দিনকে।  নিহতদের রুহের মাগফেরাত কামনায় আয়োজন   করা হয় বিশেষ দোয়া মাহফিল ও আলোচনা সভা। দলীয় কার্যালয়ে জাতীয় পতাকা উত্তোলন ও অর্ধনমিতকরণ এর মধ্যে দিয়েই কর্মসূচি শুরু হয়, আলোচনায় অংশ নিয়ে তারিকুল হায়দার চৌধুরী বলেন”- বঙ্গবন্ধুর সবচাইতে বড় অবদান- শুধু বাঙালি জাতিও বাংলাদেশের  অস্তিত্ব ফিরিয়ে আনাই নয়, বাঙালির হাজার বছরের সংস্কৃতি ও সভ্যতার পুনরুজ্জীবন ঘটানোই ছিল বঙ্গবন্ধুর বড় অবদান। ধর্মের ভিত্তিতে বাঙ্গালীদের মধ্যে যে বিভাজন সৃষ্টি করা হয়েছিল বঙ্গবন্ধু তা গুছিয়ে বাঙালির একক জাতিত্বের -একক পরিচয়ের প্রতিষ্ঠা করতে চেয়েছিল”।  তিনি আরো বলেন “গতানুগতিক রাজনীতি করেননি বঙ্গবন্ধু, তিঁনি  জাতিকে উপহার দিয়েছিলেন একটি রাজনৈতিক দর্শন, আর তাহলো শোষিতের  গণতন্ত্র। এই গণতন্ত্রের ভিত্তিতে  তিনিঁ  এক শোষণহীন  রাষ্ট্র ও সমাজ  গড়তে চেয়েছিলেন। এ রাষ্ট্র ও সমাজ গড়ার ক্ষেত্রে বঙ্গবন্ধু  অনেকটা এগিয়েও  গিয়েছিলেন, কিন্তু জাতির বদনসীব – এই সময়ে ঘাতকের বুলেট বাঙালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে হত্যার মধ্য দিয়ে বঙ্গবন্ধুর আরদ্ধ কাজকে স্তব্ধ করে দিয়েছে,, “” বঙ্গবন্ধুর বাংলায় – রাজাকারের ঠাই নাই””  এমন স্লোগান দিয়ে যুক্তরাষ্ট্র যুবলীগের আহ্বায়ক  তারিকুল হায়দার চৌধুরী আরো বলেন -” যারা ৭১ সালে এদেশের স্বাধীনতা চায়নি  সেই রাজাকারের দল এখনো সক্রিয়, দেশে-বিদেশে তাদের চক্রান্ত থেমে নেই”,  সেই কুচক্রী মহলসহ বঙ্গবন্ধু হত্যার নেপথ্য নায়কদের  খুঁজে বের করে শাস্তির আওতায় আনার দাবি জানান তিনি।  যুক্তরাষ্ট্র যুবলীগের আহবায়ক একেএম তারিকুল হায়দার চৌধুরীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন- বাংলাদেশ আওয়ামী  যুব লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য মঞ্জুর  আলম শাহীন। যুক্তরাষ্ট্র যুবলীগের আহ্বায়ক একেএম  তারিকুল হায়দার চৌধুরী। যুগ্ম আহ্বায়ক বাহার খন্দকার সবুজ সহ যুক্তরাষ্ট্র যুবলীগের বিপুল সংখ্যক নেতাকর্মী।।

ডেইলি বিজয়.নেট।।