হাটহাজারী প্রতিনিধি ::

লাখ লাখ ভক্ত অনুসারীদের কাঁদিয়ে চট্টগ্রামের আল-জামিয়াতুল আহলিয়া দারুল উলুম মঈনুল ইসলাম হাটহাজারী মাদ্রাসায় নিজ কর্মস্থলে চিরনিদ্রায় শায়িত হলেন হেফাজতে ইসলামের আমির আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরী। হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের প্রতিষ্ঠা আমির আল্লামা শাহ আহমদ শফির কবরের পাশেই  মাদ্রাসার বাইতুল আতিক জামে মসজিদ সংলগ্ন  ” মাকবারাতুল জামিয়া” কবরস্থানে চিরনিদ্রায় শায়িত করা হয়েছে, তবে হেফাজত আমিরের জীবদ্দশায় করা ওসিয়ত অনুযায়ী পারিবারিক সিদ্ধান্ত অনুযায়ী তার মরদেহ  নিজ গ্রামে নিয়ে যাওয়ার কথা থাকলেও শিক্ষার্থীদের বাধার মুখে তার সম্ভব হয়নি। বৃহষ্পতিবার ১৯  আগস্ট দিবাগত রাত ১১ টা ২৫ মিনিটের দিকে হাটহাজারী ডাকবাংলো চত্বরে আল্লামা বাবুনগরীর মরদেহ রেখে জানাযার নামায সম্পন্ন হয়। তার দীর্ঘদিনের কর্মস্থল হাটহাজারী মাদ্রাসা প্রাঙ্গণে স্থান সংকুলান না হওয়ায় ডাকবাংলা চত্বরে  জানাজার নামাজ সম্পন্ন হয়। নামাজে ইমামতি করেন জুনায়েদ বাবুনগরীর মামা ফটিকছড়ি উপজেলার নানুপুর মাদ্রাসার পরিচালক ও হেফাজতের সদ্য ঘোষিত ভারপ্রাপ্ত আমীর আল্লামা মুহিব্বুল্লাহ বাবুনগরী। জানাজায় হাটহাজারীর  সংসদ সদস্য ব্যারিস্টার আনিসুল ইসলাম মাহমুদ এমপি। চট্টগ্রাম উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও চট্টগ্রাম জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান এম এ ছালাম। হাটহাজারী উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান  রাশেদুল আলম। চট্টগ্রাম জেলা -উপজেলা আওয়ামী লীগ,বিএনপি এবং এর অঙ্গ সংগঠনের নেতৃবৃন্দ সহ আলেম,সরকারি কর্মকর্তাসহ দেশের নানা প্রান্ত থেকে কয়েক লাখ মানুষ অংশ নেন। আল্লামা বাবুনগরীর সহকর্মী, ছাত্র ভক্তও অনুসারীসহ জানাজায় আসা অনেকে কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন। জানাজা উপলক্ষে এলাকাজুড়ে বাড়ানো হয় আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর তৎপরতা। নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে কয়েক শতাধিক পুলিশ বাহিনীর সদস্যদের পাশাপাশি সাদা পোশাকে গোয়েন্দা সংস্থার লোকজন  উপজেলা সদরের বিভিন্ন স্থানে মোতায়েন ছিল। এর আগে বিকেল তিনটায় শেষবারের মতো নিজ বাড়ির উদ্দেশ্যে হাটহাজারী মাদ্রাসা থেকে রওনা হন হেফাজতে ইসলামের আমির আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরীর মরদেহ। উপজেলার দৌলতপুর ইউনিয়নের বাবু নগর গ্রামে তার মরদেহ পৌঁছলে  এলাকায় নেমে আসে শোকের ছায়া। সন্ধ্যার পর বাবুনগরীর মরদেহ তার গ্রামের বাড়ি থেকে হাটহাজারী মাদ্রাসার দিকে রওনা দেয়। এসময় বাবুনগরী জীবন দশায় থাকে নানান কবরের পাশে দাফন করার জন্য বলেছিলেন এমন দাবিতে মরদেহ বহনকারী অ্যাম্বুলেন্সটি স্থানীয়রা আটকে দেয়। পরে  মরদেহ বহনকারী  এ‍্যাম্বুলেন্সটি রওনা  দিয়ে রাত নটার দিকে হাটহাজারী মাদ্রাসায় এসে পৌঁছেছে। এদিকে সাড়ে আটটার দিকে চট্টগ্রাম-খাগড়াছড়ি মহাসড়কে যান চলাচল বন্ধ করে দেয়। তিন থেকে চার কিলোমিটার যানজটের সৃষ্টি হয়। এসময় যাত্রীসাধারণ পায়ে হেঁটে গন্তব্যে পৌঁছতে দেখা গেছে। প্রসঙ্গত বৃহস্পতিবার (১৯ আগস্ট) দুপুর ১২টা ৪০মিনিটে নগরের একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করা হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।  জুনায়েদ বাবুনগরী ডায়াবেটিস সহ বার্ধক‍্যজনিত বিভিন্ন রোগে ভুগছিলেন। এর আগে তিনি কয়েকদফা গুরুতর অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন। গত ৮ আগস্ট দুপুরে চট্টগ্রামের হাটহাজারী উপজেলায় গাড়িতে বসেই করোনাভাইরাস প্রতিষেধক টিকার প্রথম  ডোজ নিয়েছিলেন  জুনায়েদ বাবুনগরী।

ডেইলি বিজয়.নেট// জে ইউ