মুজিববর্ষ উদযাপনের লক্ষ্যে মুক্তিযোদ্ধাদের সেলিম ওসমানের সাথে মত বিনিময়

0

স্টাফ রিপোর্টারঃ

বঙ্গবন্ধুর শততম জন্মবার্ষিকী পালনের লক্ষ্যে বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদ নারায়ণগঞ্জ জেলা ইউনিট কমান্ডের নেতৃবৃন্দদের সাথে মত বিনিময় করেছেন নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনের সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা সেলিম ওসমান।

বৃহস্পতিবার ১২ মার্চ রাত ৮টায় বন্দর খেয়াঘাট সংলগ্ন নারায়ণগঞ্জ জেলা মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্সে উক্ত মতবিনিময় সভাটি অনুষ্ঠিত হয়েছে। উক্ত মত বিনিময় সভায় প্রায় শতাধিক মুক্তিযোদ্ধা উপস্থিত ছিলেন।

সভায় করোনা ভাইরাসের কারনে জনসাধারণের স্বাস্থ্য সুরক্ষায় রাষ্ট্রীয় ভাবে গৃহিত সিদ্ধান্তের পরিপ্রেক্ষিতে সংক্ষিপ্ত আকারে মুজিববর্ষের অনুষ্ঠানটি পালন করা হবে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। যার মধ্যে ১৭মার্চ জাতীয় শিশু দিবস ও বঙ্গবন্ধুর জন্মদিবসের দিন শ্রদ্ধা নিবেদন, দোয়া মাহফিল ও আতশবাজির মধ্য দিয়ে উৎসবটি পালন করা হবে।

সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এমপি সেলিম ওসমান বলেন, আজকে আমাদের মুক্তিযোদ্ধাদের কোন চাহিদা নাই। যেটা রয়েছে সেটা হলো আমাদের মনের খোরাক। আমরা বঙ্গবন্ধুর নির্দেশে মুক্তিযুদ্ধে অংশ নিয়েছি। সেখানে আমরা জয়বাংলা স্লোগান দিয়েছি। আজকে জয়বাংলা জাতীয় স্লোগান বলে উচ্চ আদালত রায় দিয়েছেন। আর বঙ্গবন্ধুর নির্দেশে মুক্তিযুদ্ধে গিয়ে ছিলাম তাই জয়বাংলার সাথে জয় বঙ্গবন্ধু বলি আমরা। কিন্তু বঙ্গবন্ধুকে হত্যার পর ২১বছর বঙ্গবন্ধুর ইতিহাসকে মুছে ফেলার চেষ্টা করা হয়েছে। একটা সময় গেছে আমাদের জয়বাংলা বলতে দেওয়া হয়নি। ইতিহাসকে বিকৃত করা হয়েছে। বঙ্গবন্ধুর কন্যা ক্ষমতায় আসার পর আমরা আমাদের ভবিষ্যত প্রজন্মকে সঠিক ইতিহাস জানাতে পারছি। এই মুজিববর্ষের মধ্যে আমাদের এই কাজটি সম্পন্ন করতে হবে। তাহলে দেখা যাবে আমাদের ভবিষ্যত প্রজন্মই ওই সকল রাজকার আলবদরের দোসরদের বাংলার ইতিহাস থেকে মুছে দিবে। ভবিষ্যত প্রজন্মকে আমরা সেই ভাবেই গড়ে তুলে রেখে যেতে চাই।

বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদ নারায়ণগঞ্জ জেলা ইউনিট কমান্ডের সাবেক কমান্ডার মোহাম্মদ আলীর সভাপতিত্বে মত বিনিময় সভায় আরো উপস্থিত ছিলেন সদর উপজেলা ইউনিট কমান্ডের কমান্ডার শাহাজাহান ভুইয়া জুলহাস, চাষাঢ়া ইউনিট কমান্ডের কমান্ডার ফরিদা আক্তার, বন্দর উপজেলা ইউনিট কমান্ডের কমান্ডার আব্দুল লতিফ, যুদ্ধকালীন কমান্ডার আমিনুর রহমান, সাবেক কমান্ডার অ্যাডভোকেট নুরুল হুদা, নারায়ণগঞ্জ চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রি এর সভাপতি খালেদ হায়দার খান কাজল সহ শতাধিক মুক্তিযোদ্ধা।